ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ অগ্রহায়ন ১৪৩১, ১৬ মহররম ১৪৪৬

বন্দরে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য শাকিল পারভেজ রনি ফেন্সিডিল সহ ডিবির হাতে আটক



বন্দরে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য শাকিল পারভেজ রনি ফেন্সিডিল সহ ডিবির হাতে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অভিযানে বন্দর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের উপনির্বাচনে নবনির্বাচিত মেম্বার শাকিল পারভেজ রনি সহ ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে ফেন্সিডিল সহ গ্রেফতার করা হয়েছে।

গতকাল (৩১ মার্চ, রবিবার) জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের বন্দর থানা এলাকার মদনপুর বাসস্ট্যান্ডে বিশেষ অভিযান পরিচালনা কালে রাত ৮.২০ ঘটিকার সময়  গোপন সূত্রে সংবাদ পেয়ে সংবাদের বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে এবং উক্ত সংবাদের সত্যতা যাচাই ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তাৎক্ষনিক ভাবে ডিবি পুলিশের এসআই মোঃ মাহবুবুল আলম রনি সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ রওয়ানা দিয়ে রাত ৮.৩০ ঘটিকার সময় বন্দর থানাধীন মদনপুর আন্দিরপাড় (কবরস্থান রোড) সাকিনস্থ সিদ্দিক স্টোরের সামনের পাকা রাস্তার উপর পৌঁছালে (ডিবি) পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে ০৪ জন ব্যক্তি কৌশলে পালানোর চেষ্টা করে। পরে ডিবি পুলিশের এসআই মোঃ মাহবুবুল হক রনি সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহযোগীতায় আসামিদের পর্যাপ্ত বৈদ্যুতিক আলোতে এনে জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত ১নং আসামী নবনির্বাচিত ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার শাকিল পারভেজ (@) রনি (৪০) এর দেহ তল্লাশীকালে আসামীর পরিহিত প্যান্টের সামনের ডান পকেট হইতে ০২ (দুই) বোতল ফেন্সিডিল, ২নং আসামী রুবেল (২৮) এর দেহ তল্লাশীকালে তাহার পরিহিত প্যান্টের সামনের ডান পকেট হইতে ০২ (দুই) বোতল ফেন্সিডিল এবং তাহার পরিহিত প্যান্টের সামনের বাম পকেট হইতে ০২ (দুই) বোতল ফেন্সিডিল, ৩নং আসামী মুজাহিদ মোল্লা (২৬) এর দেহ তল্লাশীকালে তাহার পরিহিত প্যান্টের সামনের ডান পকেট হইতে ০২ (দুই) বোতল ফেন্সিডিল এবং ৪নং আসামী ইসমাইল (৩৩) এর দেহ তল্লাশীকালে তাহার পরিহিত প্যান্টের সামনের ডান পকেট হইতে ০২ টি সর্বমোট ১০ (দশ) বোতল ফেন্সিডিল আসামীরা নিজেদের হাতে বাহির করিয়া দেয়। আসামিদের হেফাজতে থাকা ১০ বোতল ফেন্সিডিল যাহার অনুমান মূল্য  (৪০০০×১০)=৪০,০০০/-(চল্লিশ হাজার) টাকা। 

মামলার এজাহার সূত্রে গ্রেফতারকৃত আসামিদের ঠিকানা জানা যায়, আসামী ১. শাকিল পারভেজ রনি (৪০) (১নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত মেম্বার), পিতা-আব্দুল মোতালিব, মাতা-পিয়ারা বেগম, গ্রাম-মদনপুর (সাহেব বাড়ি), থানা-বন্দর, জেলা-নারায়ণগঞ্জ, ২. রুবেল (২৮) (ভাসমান), পিতা-আবুল মিয়া, মাতা-আমেনা খাতুন, সাং-গোবিন্দপুর, থানা- মেঘনা, জেলা-কুমিল্লা, এ/পি সাং-শহীদনগর (জলিল মিয়ার ভাড়াটিয়া), থানা-ফতুল্লা, জেলা-নারায়ণগঞ্জ, ৩. মুজাহিদ মোল্লা (২৬), পিতা-গাজী মোল্লা, মাতা-ফিরুজা খাতুন, সাং-শহীদ নগর, থানা-ফতুল্লা, জেলা-নারায়ণগঞ্জ এবং ৪নং আসামি ইসমাইল (৩৩), পিতা-মঞ্জু ভুইয়া, মাতা-শাহিদা বেগম, সাং-মদনপুর (বড় সাহেব বাড়ি), থানা-বন্দর, জেলা-নারায়ণগঞ্জ।

আসামীদেরকে জব্দকৃত মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে তাঁরা স্বীকার করে যে, তাহারা দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন এলাকা হইতে মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সংগ্রহ করিয়া জেলার বন্দর থানা এলাকাসহ আশপাশের এলাকায় বিক্রয় করিয়া আসছে।

আটককৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে বন্দর থানায় ধারা-২০১৮ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) এর সারণির (৪) মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।


   আরও সংবাদ